শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
রাজধানীর মাতুয়াইলে দুই হাজার পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী  দিলেন কাউন্সিলর সেন্টু ডেমরায় ৬৯ নং ওয়ার্ড  আওয়ামী লীগের  পক্ষে ইফতার বিতরণ  ডেমরায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নবদিগন্তের উদ্যােগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল সাবেক সংসদ আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মোল্লা‘র প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও ইফতার মাহফিল ডেমরায় রোজাদারদের মাঝে ছাত্রলীগের ইফতার বিতরণ কর্মহীন ও দুস্থদের মাঝে ইফতার বিতরণ করলেন কবি নজরুল সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা পাভেল নবীন সমাজ কল্যাণ পরিষদের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে হাইমচরে দেড় শতাধিক পরিবারে ইফতার সামগ্রী ও ঈদ উপহার বিতরণ ইচ্ছে হাসি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের উদ্যােগে অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে ইফতার বিতরণ ডেমরায় নেহরীন মোস্তফা দিশির নির্দেশে অসহায় ও কর্মহীনদের মাঝে সিরাজুল আলমের ইফতার বিতরণ বৈশ্বিক মহামারীতে হিজড়া জনগোষ্ঠী যাতে অভাবের তাড়নায় কোন প্রকার অপরাধ কর্মের সাথে যুক্ত না হয়ে পড়ে : ডিআইজি হাবিবুর রহমান

কোনাপাড়া ষ্টান্ডে সিটি করপোরেশনের নামে চাঁদাবাজি বন্ধে ইজি বাইক চালকদের সড়ক অবরোধ

নাজমুল হাসান ,স্টাফ রিপোর্টার:

রাজধানীর যাত্রাবাড়ির কোনাপাড়া,শনিরআখড়া,ফার্মেরমোড়সহ বিভিন্ন ষ্ট্যান্ডে চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ ইজিবাইক,মিশুক ও ইঞ্জিনচালিত অটো রিকসা চালকরা। চাঁদাবাজি বন্ধের দাবিতে কোনাপাড়া ষ্ট্যান্ডে সোমবার দুপুরে চালকরা বিক্ষোভ মিছিল করেন।

এ সময় চালকরা বলেন, আমরা গরীব মানুষ পেটের দায়ে সড়কে গাড়ি চালাই। সড়কে গাড়ি নিয়ে আসলেই কোনাপাড়া ষ্ট্যান্ডে প্রতি গাড়ি থেকে ৭০ টাকা চাঁদা দিতে হয়। এ টাকা আদায় করেন লাইনম্যান রনি, হিরাসহ আরও অনেকে। ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নামে গাড়ি প্রতি দৈনিক ২০/৩০ টাকা চাঁদা নেয় আরিফ। এছাড়া হলুদ, কমলা, টিয়া কালারের ষ্টিকার ও টোকেনের মাধ্যমে শনিরআখড়া-কোনাপাড়া সড়কে ইজিবাইক থেকে দৈনিক নেয়া হয় ১২০ টাকা করে। আল-আমিন রোড, ফার্মের মোড়, বাদশা মিয়া রোড, মেডিকেল রোড, হাসেম রোড, রায়েরবাগ, মাতুয়াইল কবরস্থান রোড এলাকায় আল্লাহ ভরসা নামের সংগঠনের টোকেন লাগিয়ে নেয়া হয় ২০ টাকা।
চালকরা আরও বলেন, এ এলাকায় সড়কে ইজিবাইক রয়েছে প্রায় ১২’শ, মিশুক ও ইঞ্জিনচালিত অটোরিকসা রয়েছে প্রায় ৫ হাজার। এসব গাড়ি থেকে দৈনিক লক্ষ টাকা চাঁদা আদায় করেন চাঁদাবাজরা। তাদের চাঁদা না দিলে রেকার ও ট্রাফিক পুলিশের হুমকী দেন। গাড়ির মালিকের জমা ও ঘাটে ঘাটে চাঁদা দিয়ে সারাদিন গাড়ি চালিয়ে আমরা ঘরে আর টাকা নিতে পারিনা। আমরা সারাদিন কষ্ট করেই বেড়াই। আর আমাদের কষ্টের টাকা খায় চাঁদাবাজরা। আমাদের ছেলে-মেয়ে,বাবা-মা স্ত্রীদের ভরণ পোষন করতে পারছিনা।

কোনপ্রকার উপায়ান্তর না পেয়ে অতিষ্ঠ হয়ে আজ সড়কে আন্দোলন করতে বাধ্য হয়েছি। যতক্ষননা চাঁদাবাজি বন্ধ না হবে, ততদিন আমরা এভাবে আন্দোলন করব। আগামী দিন মঙ্গলবার মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করার কথাও তারা বলেন।

এ বিষয়ে ডেমরা ট্রাফিক জোনের এসি রবিউল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে আমার জানা নেই। সংশ্লিষ্ট ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) এর সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Dailyprotidinerkhobor
Design & Developed BY Freelancer Zone