বুধবার, ১২ মে ২০২১, ০২:৫৬ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
ডেমরায় সুবিধাবঞ্চিতদের মাঝে ইফতার বিতরণ করলেন ৬৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিন সাউদ ডেমরায় সুবিধাবঞ্চিত আড়াই হাজার পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের পাশে দাড়াঁলো ইচ্ছে হাসি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কবি নজরুল কলেজের প্রাক্তন বিভাগীয় প্রধান ও সহযোগী অধ্যাপক জনাব আলেয়া খাতুন ইন্তেকাল করেছেন পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ১২তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বাউবির ছাত্র ঐক্য পরিষদের দোয়া ও আলোচনা সভা গণভবনের সামনে নিরন্নদেরকে নিয়ে ঈদ করবে নতুনধারা : মোমিন মেহেদী রাজধানীর মাতুয়াইলে দুই হাজার পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী  দিলেন কাউন্সিলর সেন্টু ডেমরায় ৬৯ নং ওয়ার্ড  আওয়ামী লীগের  পক্ষে ইফতার বিতরণ  ডেমরায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নবদিগন্তের উদ্যােগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল সাবেক সংসদ আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান মোল্লা‘র প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া ও ইফতার মাহফিল

স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক কাঁচপুর শাখার ব্যবস্থাপকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

সোনারগাঁ প্রতিনিধি: স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক কাঁচপুর শাখার ব্যবস্থাপকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দূনীতির অভিযোগ এনে তার বিরুদ্ধে ওই প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগীরা। আজ সকালে ওই শাখার নয়জন গ্রাহক কাঁচপুর শাখার ব্যবস্থাপকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য লিখিত অভিযোগে দাবি জানান।

লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক কাঁচপুর শাখার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে তারা এই শাখায় ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন। দীর্ঘদিন থেকে সুখ দু:খের সাথী হয়ে ব্যবসা বানিজ্য পরিচালনা করছেন। ব্যাংক থেকে ঋন সুবিধা নিয়ে ব্যবসা বানিজ্য পরিচালনা করার সুবাধে আমাদের সঙ্গে গভীর সম্পর্ক তৈরী হয়েছে ব্যাংকটির কাঁচপুর শাখার ব্যবস্থাপকের সাথে। আমাদের সার্বিক সহযোগীতা ও আর্থিক লেনদেনে শাখার কার্যক্রম গতিশীল হয়েছে। কিন্তু দু:খ জনক ভাবে বলতে হচ্ছে ওই শাখার ব্যবস্থাপক রমজান আলী আমাদের সাথে বিভিন্ন সময়ে দূরব্যবহার, অসৌজন্য মূলক আচরণ করে আসছেন। এতে করে আমরা মানুষিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছি।

অভিযোগে তারা আরো উল্লেখ করেন, ওই ব্যবস্থাপক হাসিমুখে কারো সাথে কথাও বলেন না। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে আমরা এই শাখায় বিভিন্ন ভাবে আর্থিক লেনদেন করে আসছি। এমতাবস্থায় ওই ব্যবস্থাপককে অন্যত্র সরিয়ে না নিলে আমাদের ব্যাংকিং কার্যক্রম করা কোন ভাবেই সম্ভব হচ্ছে না। অনতিবিলম্বে তার বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য জোড় দাবি জানাচ্ছি। কাঁচপুর সেনপাড়া এলাকার বাসিন্দা ও ওই ব্যাংকের একজন নিয়মিত গ্রাহক আলাউদ্দিন জানান, ২০১৩ সাল থেকে এই শাখায় আমি সিসি লোন নিয়ে ইট, বালু ,পাথর, রড,সিমেন্টসহ সকল নির্মাণ সামগ্রীর ব্যবসা পরিচালনা করে আসছি। সম্প্রতি ব্যবস্থাপক আমার সাথে বিভিন্ন সময়ে খারাপ আচরণ করে আসছেন এবং সিসি লোন দেওয়ার কথা বলে তালবাহানা করা শুরু করছেন এতে আমি ব্যঊগঠছঢঅক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছি। বিষয়টি তদারকি করে আমার ঋণের ব্যবস্থা করে অর্থনীতির চাঁকাকে সচল করার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্থক্ষেপ কামনা করছি।

খান বিকস এর সত্তাধীকারী মমিন খান জানান, আমরা বেশ সুনামের সাথে ব্যাংক লোন নিয়ে ব্যবসা করে আসছি। শাখা ব্যবস্থাপকের অসহযোগীতার কারনে আমরা ঠিক মত ব্যবসা পরিচালনা করতে পারছিনা। পূর্বের ব্যবস্থাপক গ্রাহকদের সাথে সুসম্পর্ক রেখে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনা করলেও ছোটখাটো বিষয়ে আইনের নিয়মনীতি টেনে গ্রাহকদের সেবা থেকে বঞ্চিত করেন বর্তমান ব্যবস্থাপক।
জাকির ট্রেডার্সের মালিক জাকির খাঁন এই প্রবিতেদককে জানান, ব্যাংকটিতে একাউন্ট করে আমরা মনে হয় অসহায় হয়ে পড়েছি। ব্যবস্থাপকের দূরব্যবহার আর অসদআচরনের কারণে দিন দিন এই শাখার গ্রাহকও কমে যাচেছ।

কাঁচপুর এলাকার বাসিন্দা শাহআলম খান জানান, এই ব্যাংকটিতে এক সময় রমরমা ব্যাংকিং লেনদেন ছিল বর্তমান ব্যবস্থাপক রমজান আলীর কারনে অন্য ব্যাংকে নতুন করে হিসাব পরিচালনা করার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কাঁচপুর শাখার স্টান্ডার্ড ব্যাংকের ব্যবস্থাপক রমজান আলী জানান, ব্যাংকিং নিয়ম মেনে সকল রকম কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। আমি কোন অব্যবস্থাতেই কোন গ্রাহকের সাথে অসৌজন্য মূলক আচরণ করিনি।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2017 Dailyprotidinerkhobor
Design & Developed BY Freelancer Zone